1. admin@dailydeshrupyan.com : Dainik Amor Bangla :
সোমবার, ২০ সেপ্টেম্বর ২০২১, ০৭:১২ অপরাহ্ন
ব্রেকিং নিউজ :
ভোলায় হযরত মুহাম্মদ (সাঃ) কে নিয়ে কটুক্তির প্রতিবাদে বিক্ষোভ সমাবেশ । ইভ্যালির সিইও রাসেলের বাসায় র‌্যাবের অভিযান অর্থ আত্মসাতের মামলা ই-ভ্যালির সিইও রাসেল ও চেয়ারম্যান শামীমা গ্রেফতার ভ্যাকসিন দ্বিতীয় ডোজের আওতায় ১ কোটি ৪২ লাখ মানুষ ১২ বছর ও তার বেশি বয়সী শিক্ষার্থীদের টিকা দেওয়া হবে: প্রধানমন্ত্রী ৫ অক্টোবর থেকে সীমিত পরিসরে ঢাবির হল খুলে দেওয়া হবে কেয়া গ্রুপের মালিক ও পরিবারের বিরুদ্ধে দুদকের ৫ মামলা ভোলা বোরহানউদ্দিনে আনসার ও ভিডিপি বাহিনীর মতবিনিময় সভা অনুষ্ঠিত । গণটিকাদান কর্মসূচির দ্বিতীয় ডোজ শুরু মঙ্গলবার পরীমনি কাহিনী: আইনের শাসনের একটি উদ্বেগজনক গল্প

ভোলায় বখাটের ছোঁড়া পেট্রোলের আগুনে ঝলসে গেলো মা ও মেয়ে

মোঃ হাসিবুর রহমান হাসিব
  • প্রকাশিত: রবিবার, ২২ আগস্ট, ২০২১
  • ৪৮ বার পড়া হয়েছে

ভোলার লালমোহনে এক বখাটের নিক্ষেপ করা পেট্রোলের আগুনে ঝলসে গেছে মা ও মেয়ের শরীর। আহতরা হলেন, গজারিয়া সরকারি প্রাথমিক বিদ্যালয়ের প্রধান শিক্ষক মহিবুল্লাহর মেয়ে জান্নাতুল নাঈমা (২২) ও তার স্ত্রী নাজমা বেগম (৫০)। এ ঘটনায় জান্নাতুল নাঈমার শরীরের বিভিন্ন স্থানে প্রায় ২৫ ভাগ পুড়ে গেছে। অন্যদিকে, তার মা নাজমা বেগমের হাতের চার শতাংশ পুড়ে গেছে বলে জানান চিকিৎসক।

শনিবার (২১ আগস্ট) রাতে উপজেলার চর উমেদ ইউনিয়নের গজারিয়া বাজার এলাকায় এ ঘটনা ঘটে।

পরে স্থানীয়দের সহায়তায় পরিবারের সদস্যরা আহতদের উদ্ধার করে লালমোহন উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সে নিয়ে যান। সেখানে প্রাথমিকভাবে চিকিৎসা দেওয়া হলেও অবস্থা সংকটাপন্ন হওয়ায় কর্তব্যরত চিকিৎসক তাদেরকে ঢাকা যাওয়ার পরামর্শ দেন।

ঘটনার বর্ণনা দিয়ে আহত জান্নাতের ভাই মো. আশরাফ হোসেন জানান, গজারিয়া এলাকার বাসিন্দা নুরুল ইসলাম পাটোয়ারীর ছেলে সুমন দীর্ঘদিন যাবত আমার বোন জান্নাতকে প্রেমের প্রস্তাব দিয়ে আসলেও জান্নাত তা প্রত্যাখ্যান করে। গতকাল শনিবার (২১ আগস্ট) জান্নাতকে দেখতে পাত্রপক্ষের লোকজন আমাদের বাড়িতে আসে। বিষয়টি সুমনের কানে গেলে সে ক্ষিপ্ত হয়ে সন্ধ্যার পরই রান্না করার সময় পলিথিন ভর্তি পেট্রোল এনে আমার বোন জান্নাতের গায়ে নিক্ষেপ করে। এরপর পেট্রোল জান্নাতের শরীর ও চুলার উপর পড়ে মুহূর্তের মধ্যে জান্নাতের শরীরে আগুন ধরে যায়। তার চিৎকারে ঘরে থাকা আমার মা দৌড়ে এসে আগুন নেভানোর চেষ্টা করেন। এতে করে জান্নাতের পাশাপাশি আমার মায়ের হাতেরও অনেকখানি অংশ আগুনে ঝলসে যায়।

এ ব্যাপারে, লালমোহন উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সের জরুরি বিভাগে কর্তব্যরত মেডিকেল অফিসার ডাক্তার মো. ফাহাদ নাসির জানান, আগুনে ঝলসে যাওয়া রোগীরা আসলে প্রাথমিকভাবে তাদেরকে জরুরি বিভাগে চিকিৎসা দেওয়া হয়। এদের মধ্যে জান্নাতের অবস্থা মারাত্মক হওয়ায় তার মাসহ তাকে উন্নত চিকিৎসার জন্য ঢাকায় প্রেরণ করা হয়।

ঘটনার সত্যতা স্বীকার করে লালমোহন থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (ওসি) মাকসুদুর রহমান মুরাদ বলেন, ৯৯৯ এ একটি কলের ভিত্তিতে হাসপাতালে গিয়ে ভুক্তভোগীদের সাথে কথা বলেছি। ঘটনার সত্যতা জানতে আমরা ঘটনাস্থলও পরিদর্শন করেছি। তবে এই ঘটনায় এখন পর্যন্ত আহতদের পরিবারের পক্ষ থেকে কেউই থানায় অভিযোগ করেনি।

সংবাদটি শেয়ার করুন

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

আরো সংবাদ পড়ুন
© সর্বস্বত্ব স্বত্বাধিকার সংরক্ষিত

প্রযুক্তি সহায়তায় www.dailydeshrupyan.com